• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫৪ অপরাহ্ন

শীতের রুক্ষতা থেকে ত্বক বাঁচাবে এই ৬ পানীয়

জীবনযাপন ডেস্ক
Update : শুক্রবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২৩
শীতের রুক্ষতা থেকে ত্বক বাঁচাবে এই ৬ পানীয়
শীতের রুক্ষতা থেকে ত্বক বাঁচাবে এই ৬ পানীয়

শীতে ডিহাইড্রেশন বা ত্বকের শুষ্কতা একটি সাধারণ সমস্যা হিসেবেই বিবেচিত হয়। এই শুষ্কতা ও রুক্ষতাকে বিদায় জানাতে চাইলে রূপচর্চার পাশাপাশি খাদ্য তালিকার দিকে নজর দেওয়া জরুরি। বিশেষ করে আপনি যা পান করেন সেটা ত্বকের হাইড্রেশন স্তরের উপর গভীর প্রভাব ফেলতে পারে।

ডিহাইড্রেশন এবং শুষ্ক ত্বকের মধ্যে সংযোগ কী?
শীতের সময়ে ডিহাইড্রেশন একটি সাধারণ সমস্যা, কারণ ঠান্ডা বাতাস ত্বক থেকে আর্দ্রতা ছিনিয়ে নেয়। এতে ত্বক শুষ্ক এবং রুক্ষ হয়ে পড়ে। শুষ্ক ত্বকের বিরুদ্ধে লড়াই করার চাবিকাঠি কেবল ত্বকের যত্নের রুটিনেই নয়, বরং আপনি সারাদিনে যা চুমুক দেন তাতেও রয়েছে। রুক্ষতা দূর করে ত্বককে সুস্থ এবং হাইড্রেটেড রাখতে সাহায্য করবে এমন কিছু স্বাস্থ্যকর পানীয়ের ব্যাপারে জেনে নিন।

পানীয় কীভাবে ত্বক সুস্থ রাখে?
ডিহাইড্রেশন ত্বকের শুষ্কতার একটি সাধারণ কারণ। পর্যাপ্ত তরল গ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে এটি রোধ করা যেতে পারে। ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বজায় রাখতে এবং শুষ্কতা প্রতিরোধের জন্য পানি অপরিহার্য। অন্যান্য হাইড্রেটিং পানীয় যেমন অ্যান্টিঅক্সিডেন্টযুক্ত গ্রিন টি, ভিটামিন সি-এর জন্য উষ্ণ লেবু-পানি এবং ইলেক্ট্রোলাইটের জন্য ডাবের পানি ত্বকের যত্নে অবদান রাখে। অন্যদিকে অ্যালকোহল এবং ক্যাফিনযুক্ত পানীয় ত্বকের শুষ্কতা বাড়িয়ে তোলে। ফলে ডিহাইড্রেটিং পানীয়ের চেয়ে হাইড্রেটিং পানীয় বেছে নেওয়া ত্বকের আর্দ্রতা বৃদ্ধি এবং শীতের শুষ্কতার বিরুদ্ধে লড়াই করার একটি সহজ কিন্তু কার্যকর উপায়।

কোন কোন পানীয় ত্বকের জন্য উপকারী?

.নিঃসন্দেহে পানি। এটি আপনার ত্বককে হাইড্রেটেড রাখার সবচেয়ে সহজ এবং সবচেয়ে কার্যকর উপায়। পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করলে ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা এবং নমনীয়তা বজায় থাকবে। প্রতিদিন কমপক্ষে দুই থেকে আড়াই লিটার পানি পান করুন।.গ্রিন টি হচ্ছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পাওয়ার হাউস। এতে প্রদাহ-বিরোধী বৈশিষ্ট্যও রয়েছে যা ত্বকের জন্য বিস্ময়কর কাজ করতে পারে। ত্বকের হাইড্রেশনের মাত্রা বাড়াতে এক কাপ উষ্ণ গ্রিন টিতে চুমুক দিন। গ্রিন টিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্রি র‌্যাডিক্যাল থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। পাশাপাশি ত্বককে প্রাণবন্ত দেখাতে সাহায্য করে। .দিন শুরু করুন এক গ্লাস উষ্ণ লেবু পানি দিয়ে। বিপাক ক্রিয়া স্বাভাবিক রাখার পাশাপাশি ত্বককে হাইড্রেশনে ঢদেবে এই পানীয়। লেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে, যা কোলাজেন উৎপাদনে সহায়তা করে। ত্বককে প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা দেয় ভিটামিন সি।.ইলেক্ট্রোলাইট দিয়ে পরিপূর্ণ ডাবের পানি ত্বককে সুস্থ ও কোমল রাখতে সাহায্য করে।  .শসার টুকরো এবং পুদিনা পাতার সাথে পানি মিশিয়ে ডিটক্স ওয়াটার বানিয়ে নিন। ত্বককে প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা দেবে এই পানীয়। .অ্যালোভেরার রস পান করুন ত্বকের সুস্থতায়। ভিটামিন, খনিজ এবং অ্যামিনো অ্যাসিড দিয়ে পরিপূর্ণ এই পানীয় ত্বকের হাইড্রেশন নিশ্চিত করবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category