• বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৪:২৬ পূর্বাহ্ন
/ জীবনযাপন
শীতে ডিহাইড্রেশন বা ত্বকের শুষ্কতা একটি সাধারণ সমস্যা হিসেবেই বিবেচিত হয়। এই শুষ্কতা ও রুক্ষতাকে বিদায় জানাতে চাইলে রূপচর্চার পাশাপাশি খাদ্য তালিকার দিকে নজর দেওয়া জরুরি। বিশেষ করে আপনি যা read more
বিকালের নাস্তায় বাচ্চাদের জন্য কী করা যায় ভাবছেন? বানিয়ে ফেলতে পারেন মজাদার ডিম-কলার পিঠা। এটি খেতে যেমন সুস্বাদু, তেমনি পুষ্টিগুণেও অনন্য। জেনে নিন পিঠা বানানোর সহজ রেসিপি। দুটি কলার খোসা
পার্টি সাজের ষোলোকলা পূর্ণ করতে পারে জমকালো একটি ঝুমকা। তবে ভারী কানের দুল দীর্ঘক্ষণ পরে থাকলে অনেকেই কানে ব্যথা হয়। এজন্য ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও অনেকে ভারী দুল পরতে পারেন না।
শিশু মিষ্টি খাওয়ার বায়না করেছে? খুব অল্প সময়ে সুজি দিয়ে দিয়ে ঘরেই বানিয়ে ফেলতে পারেন মজাদার গোলাবজাম মিষ্টি। জেনে নিন রেসিপি। যা যা লাগবে সুজি- ১ কাপ তরল দুধ- দেড়
কাঁচা আমের টক-মিষ্টি পানীয় আম পান্না। দুইভাবে তৈরি করা যায় এটি- কাঁচা আম পুড়িয়ে ও সেদ্ধ করে। এই গরমে এক গ্লাস ঠান্ডা আম পান্না শরবত যেমন প্রাণ জুড়াবে, তেমনি দূরে
হজমে সমস্যা, অ্যাসিডিটি, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি শরীর ঠাণ্ডা রাখতে পারে। ঘোল পানে নাস্তানাবুদ নয়, বরং নানান পুষ্টিগুণের কারণে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে। ইংরেজিতে বলে ‘বাটারমিল্ক’। তবে বাংলায় ‘ঘোল
ইফতার আয়োজনে কয়েকটি ভিন্ন স্বাদের আলুর চপ পরিবেশন করতে পারেন। এজন্য প্রথমে আলুর একটি বেইজ তৈরি করে নিন। এজন্য ৫টি সেদ্ধ আলু ভালো করে চটকে নিন। চুলায় তেল গরম করে
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে করলা। সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে নিয়মিত করলা পাতে রাখতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। তবে করলার তিতকুটে স্বাদটাই যেন যত নষ্টের গোড়া!