• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০১:০২ অপরাহ্ন

স্বর্ণপদক দেওয়াতে ঢাবির ইতিহাসে সর্বোচ্চ

বিবর্তন ডেস্ক / ২৯ Time View
Update : শনিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২২
স্বর্ণপদক দেওয়াতে ঢাবির ইতিহাসে সর্বোচ্চ
স্বর্ণপদক দেওয়াতে ঢাবির ইতিহাসে সর্বোচ্চ

শিক্ষা ও গবেষণা এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে কৃতিত্বপূর্ণ অবদান রাখায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ১৩১ জন কৃতি শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীকে ১৫৩টি স্বর্ণপদক দেওয়া হয়েছে। যা ঢাবির ইতিহাসে সর্বোচ্চ স্বর্ণপদক দেয়ার রেকর্ড।

শনিবার (১৯ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ এই পদক বিতরণ করেন।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং শিক্ষকদের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের তীব্র সমালোচনা করে রাষ্ট্রপতি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আচার্য মো. আবদুল হামিদ বলেন, উপাচার্য ও শিক্ষকদের কর্মকাণ্ডে সমাজে শিক্ষকদের সম্মানের জায়গা ক্রমেই সংকুচিত হয়ে আসছে। বিভিন্ন উপায়ে প্রশাসনিক ও আর্থিক সুযোগ-সুবিধা নেয়াই যেন কিছু উপাচার্যের মূল দায়িত্বে পরিণত হয়েছে। অনেক শিক্ষকও বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরিকে ঐচ্ছিক দায়িত্ব মনে করেন।

শিক্ষক নিয়োগসহ যে কোনো নিয়োগে স্বচ্ছতা বজায় রাখার নির্দেশ দিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, উপাচার্যদের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। পরিবার ও অনুগতদের চাকরি দেয়াই যেন কিছু উপাচার্যের কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

তিনি বলেন, যুগের সঙ্গে আধুনিকতা ও প্রযুক্তির ছোঁয়ায় জীবনযাত্রা গতিশীল হলেও, গবেষণায় আমরা অনেক পিছিয়ে রয়েছি। একসময় প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশেষ মর্যাদার চোখে দেখা হত, তবে সময়ের বিবর্তনে সেই ঐতিহ্য সংকুচিত হয়ে আসছে।

এর আগে ৫২তম সমাবর্তনে ৯৮টি, ৫১তম সমাবর্তনে ৯৬টি, ৫০তম সমাবর্তনে ৯৪টি, ৪৯তম সমাবর্তনে ২৯টি এবং ৪৮তম সমাবর্তনে ৩৩টি স্বর্ণপদক দেয়া হয়। এছাড়া এবার ৯৭ জনকে পিএইচডি, ২ জনকে ডিবিএ এবং ৩৫ জনকে এমফিল ডিগ্রি দেয়া হয়েছে।

এদিন দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

তার আগে বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে রাষ্ট্রপতির নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট, সিন্ডিকেট ও অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সদস্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং কনস্টিটিউয়েন্ট কলেজের অধ্যক্ষ/ইনস্টিটিউটের পরিচালকদের অংশগ্রহণে সমাবর্তন শোভাযাত্রা কার্জন হল থেকে শুরু হয়। এরপর জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।

এবারের সমাবর্তনে বক্তা হিসেবে রয়েছেন নোবেল বিজয়ী ফরাসী অর্থনীতিবিদ ড. জঁ তিরল। তাকে সম্মানসূচক ডক্টর অব ল’স ডিগ্রি দেয়া হয়েছে।

ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজ- দুটি ভেন্যু থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাবি অধিভুক্ত সাতটি কলেজও সমাবর্তন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছে।

অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেন্যুতে মোট ২২ হাজার ২৮৭ জন শিক্ষার্থী এবং ঢাকা কলেজ ও ইডেন কলেজ ভেন্যুতে ৭ হাজার ৭৯৬ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সূচনা থেকে এ পর্যন্ত মোট ৫২ জনকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দেয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category