• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০১:০৪ অপরাহ্ন

তাদের মধ্যে আমি আগামীর বাংলাদেশকে খুঁজে পাই-মোস্তাফা জব্বার

Reporter Name / ১১২ Time View
Update : সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০২২
চ্যালেঞ্জ
তাদের মধ্যে আমি আগামীর বাংলাদেশকে খুঁজে পাই-মোস্তাফা জব্বার

শেষ হলো ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০২২’। অষ্টমবারের মতো বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) উদ্যোগে ও বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের সহযোগিতায় এর আয়োজন করা হয়। শনিবার (১ অক্টোবর) রাতে ইন্ডিপেন্ডেট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের (আইইউবি) অডিটোরিয়ামে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ আয়োজনের পর্দা নামে। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বিগত দিনের আয়োজনের সেরা অ্যাপস নিয়ে মিউজিয়াম বানাতে চায় বেসিস।

এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই হ্যাকাথন একটানা ৩৬ ঘণ্টা চলে।

পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইন্ডিপেন্ডেট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের (আইইউবি) উপাচার্য তানভীর হাসান। স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০২২-এ এবার দেশের ৯টি শহর থেকে ২ হাজারেরও বেশি প্রতিযোগী অংশ নেয়। সেখান থেকে শীর্ষ ১১০টি প্রকল্পের মধ্যে হাইব্রিড মডেলে শীর্ষ ৫০টি প্রকল্প নিয়ে ইন্ডিপেন্ডেট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)-তে এবং বাকি ৬০টি প্রকল্প নিয়ে অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয় দু’দিনব্যাপী হ্যাকাথন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমাদের দেশের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর গ্রাউন্ড টিমে যেসব সম্ভাবনাময় তরুণরা কাজ করে, তাদের মধ্যে আমি আগামীর বাংলাদেশকে খুঁজে পাই। বিশেষত, পঞ্চম শিল্প বিপ্লবের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের মতো প্রতিযোগিতার গুরুত্ব অনস্বীকার্য।

বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ বলেন, ‘আমাদের দেশে সায়েন্টিস্ট রোল মডেল তৈরি হচ্ছে না। অথচ একটি দেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধির জন্য সায়েন্টিস্ট তৈরি করা বিশেষভাবে জরুরি। এবারের নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের বিজয়ীদেরকে পুরো বাংলাদেশের সামনে আমি রোল মডেল হিসেবে উপস্থাপন করতে চাই, যাতে তাদের দেখে আগামীতে তরুণদের মধ্যে বিজ্ঞানী হওয়ার ইচ্ছা ও আকাঙ্ক্ষা তৈরি হয়। এছাড়া আমি বিগত বছরগুলোতে নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের সেরা প্রজেক্টগুলো নিয়ে একটি মিউজিয়াম তৈরি করতে চাই, যেখানে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আসবে ও বিজ্ঞানী হওয়ার উদ্দীপনা পাবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের উপদেষ্টা মোহাম্মদ মাহদী-উজ-জামান ও আরিফুল হাসান অপু।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন-নাসা আন্তর্জাতিকভাবে বিশ্বের ৩১৩টি শহরে এ প্রতিযোগিতা বাস্তবায়ন করছে।

‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০২২’ -এ বিজয়ী হয়েছে যারা, তারা হলো— ঢাকা: চ্যাম্পিয়ন- ইন্টারস্টেলা, রানার্স-আপ: টিম ছায়াপথ, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: টিম যান্ত্রিক, চট্টগ্রাম- চ্যাম্পিয়ন: ঐক্য, রানার্স-আপ: স্পেস আই, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: ব্লু মার্বেল, রাজশাহী- চ্যাম্পিয়ন: টিম পেব্যাক, রানার্স-আপ: গ্রিন আর্থ, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: টিম ক্রিপ্টোনাইট, কুমিল্লা- চ্যাম্পিয়ন: ডায়মন্ড, রানার্স-আপ: এক্সেপশন জিরো, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: টিম সি ওয়েভস, সিলেট- চ্যাম্পিয়ন: টিম ইকারুস, রানার্স-আপ: মৃত্তিকা, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: টিম পপিন, খুলনা- চ্যাম্পিয়ন: ইনভিজিবল ম্যাটেরিয়াল, রানার্স-আপ: টিম গ্রাভিটন, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: লাইভ ইন মঙ্গল, বরিশাল- চ্যাম্পিয়ন: প্রিহিম প্রো, রানার্স-আপ: সেভ আর্থ, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: ওয়াচটেক, রংপুর- চ্যাম্পিয়ন: ফ্লাই হাই, রানার্স-আপ: পার্কার্স ক্রু, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: কসমিক কিউরেটর, ময়মনসিংহ- চ্যাম্পিয়ন: রেডশিফট, রানার্স-আপ: বুয়েট নভোচারী, দ্বিতীয় রানার্স-আপ: ইনসেপশন লাস্ট হোপ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category