• সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৫২ অপরাহ্ন

দামুড়হুদায় কৃষক সমবায় সমিতির সাবেক সভাপতি ও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি / ১৩০ Time View
Update : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
অভিযোগ
দামুড়হুদায় কৃষক সমবায় সমিতির সাবেক সভাপতি ও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গার দামুহুদায় কুড়ুলগাছি আদর্শ সমবায় কৃষক সমিতির লিমিটেডের সাবেক সভাপতি ও ব্যস্থাপকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। পাহাড় সমান ঋণ রেখে দায়িত্ব হস্তান্তর করেই পার পেয়ে যাবেন ভেবেই তারা দুজনে টাকা পকেটস্থ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন বর্তমান সভাপতি।

ম্যানেজার মো আব্দুল হাকিম জানান, সাবেক সভাপতি সরফরাজ উদ্দিন ও ব্যবস্থাপক মো: আশরাফুল হক জাকির এর নিকট থেকে বিগত ২০২১ সালের মে মাসের ১১ তারিখে সমিতি পরিচালনার দায়িত্বভার গ্রহণ করি। সমিতিতে রক্ষিত বার্তা পত্রে।

সমিতির দেনার পরিমাণ ৫৭ লাখ ৪০ হাজার ৭০০ টাকার মধ্যে সরকারী প্রতিষ্ঠান বিআরডিবি থেকে নেওয়া ১৬ লাখ ৩১লাখ ৭০০ শত টাকা এবং অবশিষ্ট বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে থেকে শতকরা ২০% হারে মুনাফা দেবার শর্তে নেওয়া ঋণের পরিমাণ ৪১ লাখ ৯ হাজার টাকা। এই বিশাল ঋণের বোঝা নিয়ে সমিতি পরিচালনা করা কোনভাবেই সম্ভব না। এ সমস্যা থেকে পরিত্রাণের জন্য বিশেষ সাধারন সভা করেছি এবং দায়-দেনার বাস্তব অবস্থা সম্পর্কে সকল সদস্যদেরকে অবহিত করি।

সকলের সম্মিলিত সিদ্ধান্ত হয় যে, এই বিশাল পরিমাণের দেনা কিভাবে হলো তা খাতা পত্র খতিয়ে দেখে যারা এই দেনা করেছে তাদের কাছ থেকে টাকা ফেরত নিয়ে দেনা পরিশোধ করতে হবে। কারণ নিয়ম অনুযায়ী সেচ কাজ চালানোর জন্য যে টাকা খরচ হয়েছিল ফসল কাটার সময় বিঘা প্রতি সেচ রেট নির্ধারন করেই সেই টাকা আদায় করেছিলো। তাহলে এতো টাকা সমিতির দেনা হবে কেনো? এবং এই দেনা তাদেরকেই বহন করতে হবে।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বর্তমান কমিটি খাতাপত্র খতিয়ে দেখে দেখতে পায় সাবেক কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ সরফরাজ উদ্দীন ও ম্যানেজার মোঃ আশরাফুল হক জাকির অতিরিক্ত ২৮ লাখ ৭৭ হাজার ৭০০শত টাকা কম নিয়েছেন।

এ ব্যাপারে মোঃ সরফরাজ উদ্দীন ও আশরাফুল হক জাকিরকে সমিতির অফিসে ডাকা হয় এবং জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় যে, এই ঋণের টাকা কেন নিলেন এবং কোন কাজে খরচ করলেন? উত্তরে তারা বললেন অফিস ঘরের ছাদ নির্মাণ ও সদস্যদের মুনাফা বাবদ ১৪ লাখ ২২ হাজার ৮৮০ টাকা উন্নয়ন কাজে খরচ করেছি। অবশিষ্ট ১৪ লাখ ৫৪ হাজার ৮৮০ টাকা কোন কাজে খরচ করেছে জিজ্ঞাসা করলে তার হিসাব দিতে পারেন নাই।

বিধায় বর্তমান কমিটি জনাব সরফরাজ উদ্দীন ও জনাব মোঃ আশরাফুল হক জাকিরের নিকট উচ্চ ১৪ লাখ ৫৪ হাজার ৮৮০ টাকা সমিতির তহবিলে ফেরত চাহিয়া নোটিশ প্রদান করে। অদ্যবধি তারা সমিতির তহবিলে টাকা ফেরত দেন নাই।

সমিতির বার্ষিক সাধারন সভায় সাবেক সভাপতি মোঃ সরফরাজ উদ্দীন ও ম্যানেজার মোঃ আলরাফুল হক জাকির উপস্থিত ছিলেন কিন্তু উক্ত টাকা ফেরত দেবার বিষয়ে বক্তব্য বা কোন মতামত পেশ করেন নাই বিধায় বার্ষিক সাধারণ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুনরায় এক মাসের সময় দিয়ে টাকা ফেরতের নোটিশ দেওয়ার জন্য সমিতির বর্তমান সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান ও ম্যানেজার মো আব্দুল হাকিম কে দায়িত্ব দেওয়া হয়, সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ৪ সেপ্টেম্বরে টাকা ফেরতের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। বকেয়া টাকা ফেরত না পেলে কুড়ুলগাছি আদর্শ সমবায় কৃষক সমিতির লিমিটেড খুব বড় সমস্যার সম্মুখিন হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category