• রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
কুষ্টিয়ার গ্রামে গ্রামে কুমড়ো বড়ি তৈরীর ধুম গাংনীতে জোরপূর্বক জ‌মি দখ‌লের অপ‌চেষ্টার বিরু‌দ্ধে সংবাদ সম্মেলন গাংনীতে নাশকতা মামলায় বিএনপি নেতা জাহাঙ্গীর গ্রেফতার মেহেরপুর রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ায় বাড়ছে প্রতিবন্ধীর সংখ্যা একই পরিবারে ১৭ জন প্রতিবন্ধী মেহেরপুর জেলা পরিষদের রেস্ট হাউজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন গাংনীর সাহারবাটি গ্রামের সাবেক মেম্বার রুহুল কুদ্দুসের দাফন সম্পন্ন কুষ্টিয়ায় ট্রাকের ধাক্কায় ঝরলো দুটি প্রাণ প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গাংনী প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটির শপথ অনুষ্ঠিত

মেহেরপুরে হত্যা মামলায় তিন জনের যাবজ্জীবন

বিবর্তন প্রতিবেদক / ১৩০ Time View
Update : রবিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২২
যাবজ্জীবন
মেহেরপুরে হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন

মেহেরপুরে চাঞ্চল্যকর গোলাম লিয়াকত হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন ও অপর তিনজনের প্রত্যেককে একবছর করে সশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেছেন আদালত। মামলায় জড়িত অন্য তিন আসামীতে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

রোববার (২৮ আগস্ট) সকালে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা জজ রিপতি কুমার বিশ্বাসের আদালত এ রায় দেন।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মুজিবনগর উপজেলার বাগোয়ান গ্রামের মৃত ওলিয়ত খাঁর ছেলে মোঃ কাবিদুল ইসলাম (৫০) ও মোঃ মফিজুল খাঁ( ৪০), একই গ্রামের আবুল খাঁর ছেলে মোঃ জমাত আলী খোকা (৪০)। তবে আসামি মোঃ জমাত আলী খোকা (৪০) পালাতক রয়েছেন।

এ ছাড়াও একবছর সশ্রম কারাদন্ড প্রাপ্তরা হলেন মুজিবনগর উপজেলার বাগোয়ান গ্রামের মৃত তোহরা খাঁ এর ছেলে লিয়াকত খাঁ (৩৫) ও ভরস খাঁ (৩০) এবং আবু লাইসের ছেলে ছোট খোকন (২৮)।

জানা গেছে, ২০১৬ সালের ৮ জানুয়ারি বিকাল তিনটায় বাগোয়ান হাটে চার’শ টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে এক সংঘর্ষে মৃত গোলাম মক্করের ছেলে গোলাম লিয়াকত হোসেন খুন হয়। গোলাম লিয়াকত হোসেনের ভাই মোখলেছুর রহমান বাদি হয়ে নয় জনকে আসামি করে মুজিবনগর থানায় একটি হত্যা মামলা করে। মামলা নং সেশন ১৯৪/১৬।

মামলায় ২৭ জন সাক্ষির সাক্ষ্য ও উভয় পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শেষে ছয় আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমানীত হওয়ায় তাদের সাজা প্রদান করেন। বাকী তিন আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সত্যতা না পাওয়ায় তাদের খালাস দেয়া হয়। খালাস প্রাপ্ত আসামীরা হলেন অবিদ খাঁ, তাসির হোসেন ও মশিউর।

মামলায় সরকার পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট কাজী শহিদ, বাদি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মারুফ আহমেদ বিজন ও আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মিয়াজান আলী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category