• শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ফাঁকা ॥ উপজেলার অধিকাংশ কর্মকর্তা অনুপস্থিত

বির্বতন প্রতিবেদক / ১৩৫ Time View
Update : বুধবার, ২৪ আগস্ট, ২০২২

সরকারের দেওয়া নতুন অফিস সূচীতে সকাল আটটায় অফিসে আগমনের কথা থাকলেও তা মানেনি গাংনী উপজেলার অধিকাংশ অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীগন। সকাল নয়টার সময়েও কোন কর্মকর্তার আগমন চোখে পড়েনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের। তবে কয়েকটি অফিসের কর্মচারী ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেবিকাদের উপস্থিতি সন্তোষজনক। অপরদিকে অফিস ছুটির সময় অনেকেই আগে ভাগেই অফিস ত্যাগ করেছেন।
সরেজমিনে সকাল আটটা থেকে নয়টা পর্যন্ত গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবস্থান করে দেখা গেছে বিচিত্র সব চিত্র। সেবিকাগন দোতালায় রক্ষিত ডিজিটাল হাজিরাতে আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে অফিসে প্রবেশ করছেন। সেই সাথে ডেন্টিস্ট আমিরুল ইসলাম হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করলেন। ঘন্টা ব্যাপি অপেক্ষা করেও কোন কর্মকর্তা কর্মচারীর দেখা মেলেনি।
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বড়বাবু, স্টোর কীপার, পরিসংখ্যান অফিস, ইপিআই টেকনিশিয়ান, ল্যাব ও পরিবার পরিকল্পনা অফিস কক্ষে কেউ আসেন নি। তবে একজন অফিস সহায়ক স্বাস্থ ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কক্ষটি খুলেছেন। গোটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ময়লা আবর্জনার স্তুপে পরিনত হয়েছে। অফিস কক্ষের সামনে রয়েছে ছাগলের মলমূত্র। তবে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা উপস্থিত না থাকলেও তার অফিসের এসি, ফ্যান ও লাইট যথারীতি চলছিল।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কয়েকজন কর্মচারী জানান, শুধু আজকের নয়, এটি নিত্য দিনের চিত্র। কর্মকর্তারা কেউ সঠিক সময়ে অফিস করেন না। স্বাস্থ্য সেবা স্যাকমো আর সেবিকাদের দ্বারা পরিচালিত হয়।
এদিকে উপজেলা পরিষদের অভ্যান্তরের অফিসগুলোতে পাওয়া গেছে কর্মকর্তা কর্মচারীদের গরহাজিরা। নির্ধারিত সময়ে অফিসে উপস্থিত হয়েছে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী, সমাজসেবা কর্মকর্তা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, নির্বাচন কর্মকর্তা ও খাদ্য কর্মকর্তা। একই সময়ে উপস্থিত হন সাব-রেজিস্টার ও মৎস্য কর্মকর্তা।
অপরদিকে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী, কৃষি অফিসারগণ, সমবায় অফিসার, হিসাব রক্ষণ ও পরিসংখ্যান এবং শিক্ষা অফিসেও কোন কর্মকর্তা আসেনি।
অফিস সুত্রে জানা গেছে, কৃষি অফিসার লাভলী খাতুন ও সমবায় কর্মকর্তা প্রশিক্ষণে রয়েছেন। মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মেহেরপুরে অফিস করেন তাই এখানে আসতে পারেননি। তবে সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজমুল আলমের বিষয়ে কেউ মুখ খোলেনি।
গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী খানম জানান, প্রথম অফিস তাই অনেকেই কিছুটা দেরী করে এসেছেন। পরে আর কোন সমস্যা হবে না। সবাইকে সেরকম নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category