• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০১:৩২ অপরাহ্ন

দেশে জ্বালানী আছে, দাম বেশি তাই অপচয় কম করতে হবে…জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী 

বিবর্তন প্রতিবেদক / ১৫১ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই, ২০২২

দেশে ৬ মাসের জ্বালানী মজুদ আছে, দাম বেশি তাই সকলকেই এর অপচয় কম করতে হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) দুপুরে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন চত্ত্বরে ৭ দিনব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধনের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, যে কোন জিনিসের আমদানির ক্ষেত্রে ৬ মাসের পরিকল্পনা নিয়ে এগুতো হয়।  ৬ মাসের অধিক মালালামাল মজুদ করার কোন জায়গা দেশে নেই। সার ও জ্বালানী প্রতিনিয়তই শীপে করে দেশে ঢুকছে। মজুদের অর্ধেক শীপেই থাকে। তাই মজুদেরও কোন সঙ্কট হবেনা।

দেশে ৬ মাসের ধারণ ক্ষমতার বেশি জায়গা নেই তাই তাই এর বেশি স্টোরও করা যাবেনা। এতে দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই। তবে বাড়তি দামে তেল বিদেশ থেকে কিনতে হচ্ছে। তাই আমাদের সবকিছুর অপচয় কম করতে হবে। বৈশি^ক সমস্যার করাণে বিশ্বের প্রতিটি দেশ আজ আক্রান্ত। প্রতিটি দেশে লোডশেডিং শুরু হয়েছে।

আমেরিকা, ইংল্যান্ড জাপানের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় তেল উৎপাদন করলেও তাদের দেশেও লোডশিডিং চলছে। আমার যেহেতু তেল উৎপাদন করতে পারিনা। তাই আমাদের বাড়তি শতর্ক থাকতে হবে।

বিদ্যুতের ব্যাপরে তিনি বলেন, এখন শতভাগ ঘরে বিদ্যুত পৌঁছে দিয়েছে সরকার। রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সারা বিশ্বে এ ধরনের সমস্যা তৈরি হয়েছে। বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে তেল লাগে। সেই তেলের দাম ব্যাপকভাবে দাম বৃদ্ধি পয়েছে।

আমারা বিপদে পড়তে চাইনা বলে এ ধরনের সীদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শীতের আসলে এ সমস্যা কেটে যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। তবে আমাদের সচেতন ও সাশ্রয়ী হতে হবে বলে জানা তিনি।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা জি.এম মোহাম্মদ কবির, জেলা প্রশাসক ডঃ মুনছুর আলম খান, পুলিশ সুপার রাফিউল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ খালেকসহ সরকারী কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবন্দ।

এ সময় মন্ত্রী মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। মেলা চলবে ৭ দিনব্যাপী। ৩০ টি স্টল মেলায় শোভা পাচ্ছে। সেখান থেকে সাধারণ মানুষ বনজ, ফলদ ও বিভিন্ন ধরনের গাছের চারা কিনতে পারবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category